বিজেপিকে হারাতে ফেসবুকে বিশাল পরিমাণে খরচ করছে তৃণমূল! সামনে এলো তথ্য

সম্প্রতি ফেসবুক-বিজেপি আঁতাত নিয়ে তোলপাড় জাতীয় রাজনীতি৷ বিজেপি’কে সমর্থনের অভিযোগ উঠেছে ফেসবুকের বিরুদ্ধে৷ যার বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠেছেন বঙ্গ নেতারাও৷ কিন্তু সাম্প্রতিক রিপোর্ট বলছে, গত এক মাসে রাজনৈতিক প্রচারে ফেসবুকে সবচেয়ে বেশি টাকা ঢেলেছে তৃণমূল কংগ্রেস৷

গত ৪ অগাস্ট থেকে ২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ফেসবুক ইন্ডিয়ায় রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনের জন্য সবচেয়ে বেশি ব্যয় করেছে তৃণমূল কংগ্রেসের অফিসিয়াল পেজ৷ তথ্য বলছে, গত একমাসে ৭৭টি রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন দিয়েছে তৃণমূল কংগ্রেস৷ এর জন্য রাজ্যের শাসক দলের খরচ হয়েছে ১১ লক্ষ ১৭ হাজার ৭৩৭ টাকা৷ যা দেশের তাবড় তাবড় রাজনৈতিক দলগুলিকেও হার মানিয়ে দিয়েছে৷ সর্বোপরি, বিজেপিকে টেক্কা দিয়ে বিজ্ঞাপন ব্যয়ে শীর্ষে উঠে এসেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেস৷

রাজ্যের দোরগোড়ায় কড়া নাড়ছে বিধানসভা নির্বাচন৷ কিন্তু পথে নেমে জোড় কদমে জমকালো নির্বাচনী প্রচারে বাধ সেধেছে করোনা অতিমারি৷ সঙ্গে রাজ্যের বুকে তাড়া করে বেরাচ্ছে ‘গেরুয়া জুজু’৷  ভোট ময়দানে নিজেদের জনপ্রিয়তা ধরে রাখতেই কি তবে বিজ্ঞাপনে বিশাল অঙ্কের টাকা খরচ করছে ঘাসফুল শিবির?

এদিক, গুগল এবং টুইটার উভয় রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনকে ‘না’ বলায় রাজনৈতিক দলগুলির সামনে সবচেয়ে বড় প্ল্যাটফর্ম হয়ে উঠেছে মার্ক জুকারবার্গের সংস্থা৷ সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম ‘দ্যা কুইন্ট’-এর প্রকাশিত রিপোর্টে তুলে ধরা হয়েছে সাম্প্রতিক কালে ভারতে ফেসবুকে  সবচেয়ে বেশি খরচ করা ১০টি বিজ্ঞাপনের তালিকা৷ যার প্রথমেই রয়েছে ‘অল ইন্ডিয়া তৃণমূল কংগ্রেস’৷ এর পর যথাক্রমে রয়েছে সঞ্জয় সিং ফ্যান, পাবলিক, অশোক গেহলট, বাত বিহার কি, পিএমএফবিওয়াই, সিএমও রাজস্থান, ইউথ ইন পলিটিক্স প্রভৃতি৷ ১৩ নম্বরে রয়েছে তৃণমূলের আরও একটি পেজ ‘বাংলার গর্ব মমতা’৷

অন্যদিকে, পশ্চিমবঙ্গের প্রথম দশের শীর্ষেও স্বাভাবিকভাবেই রয়েছে ‘অল ইন্ডিয়া তৃণমূল কংগ্রেস’৷ এর পর রয়েছে ইউথ ইন পলিটিক্স৷ এটি প্রশান্ত কিশোরের রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন৷ বর্তমানে তৃণমূলের হয়েই কাজ করছেন তিনি৷ তৃতীয় স্থানে রয়েছে ‘বিজেপি ওয়েস্ট বেঙ্গল’ এবং ছয় নম্বর স্থানে রয়েছে ‘বাংলার গর্ব মমতা’৷ বিজ্ঞাপন ব্যয়ের নিরিখে গত মাসে বাংলায় রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনের জন্য বিজেপি’র খরচ সেখানে অনেকটাই কম৷ মাত্র ২ লক্ষ ৩৮ লক্ষ টাকা৷ অন্যদিকে, গত ১৭ মাসে রাজনৈতিক বিজ্ঞাপন পিছু ২১ লক্ষ ৯৭ হাজার টাকা খরচ করেছে তৃণমূল৷

এদিকে, ফেসবুকের দফতরে সম্প্রতি একটি চিঠি পাঠান তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন৷ ওই চিঠিতে ফেসবুকের সঙ্গে বিজেপি’র ঘনিষ্ঠতার অভিযোগ তোলেন তিনি৷ ফেসবুকের সঙ্গে বিজেপি’র এই সমীকরণ রাজ্যের আসন্ন নির্বাচনে প্রভাব ফেলবে বলেও সুর চড়ান তিনি৷ এছাড়াও ফেসবুক তাঁদের সমর্থকদের পেজ ও পোস্ট মুছে দিচ্ছি বলেও চিঠিতে অভিযোগ তুলেছেন ডেরেক৷