দিদিকে বলে তৃণমূল কর্মীর হাতে ব্যাপক মারধর খেলো ব্যাবসায়ি

মাই ইন্ডিয়া ডেস্কঃ খড়গপুর শহরের  সুভাষপল্লী এলাকায় জন সাধারনের ব্যবহার্য একটি পুকুর এক ব্যক্তি তার কাঁটার বেড়া দিয়ে ঘিরে ফেলছে এমনই অভিযোগ ‘দিদিকে বলে’ তৃনমূল কর্মীর হাতে বেধড়ক ধোলাই খেলেন স্থানীয় বাসিন্দা ও ব্যবসায়ী গাঙ্গু ভাই। রবিবার এই ঘটনার পর ‘দিদিকে বল’ তে ডায়াল করতে আর সাহস পাবেননা খড়গপুরবাসি। সুভাষপল্লী এলাকার ওই পুকুর ব্যানার্জি পুকুর নামেই পরিচিত। এলাকার কিছু স্বার্থন্বেষী মানুষ আবর্জনা ফেলে পুকুরটি ভরাটের চেষ্টা করছিল। স্থানীয় মানুষ ও মিডিয়ায় বিষয়টি নিয়ে হৈচৈ শুরু হয়। এরপর পৌরসভার তরফে পুকুরটি সংস্কারে হাত দেওয়া হয়। ক খড়গপুর পৌরসভার এই অভিযান চলাকালীনই পুকুরের মালিক বলে  দাবি করে তৃনমূল নেতা সুকদেব সাহা যিনি তৃণমূলের হয়ে পৌর নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দিতা করে হেরে যান ,পুকুরের চারপাশ কাঁটাতার দিয়ে ঘিরে ফেলার কাজ শুরু করেন।  এরই প্রতিবাদ করেন স্থানীয়  বাসিন্দা গাঙ্গু ভাই।

ঘটনার পেছনে তৃণমূলে নেতাদের হাত রয়েছে এবং তাঁদের বলে কিছু হবেনা মনে করে ওই ব্যবসায়ী সরাসরি দিদিকে বল কে ফোন করে অভিযোগ জানান। শনিবার অভিযোগ করার পরেই রবিবার সকালে খড়গপুর শহর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে কাগজপত্র দেখতে চাইলে সাহা পুলিশকে সন্তুষ্ট করতে পারেনি। পুলিশ বেড়া দেওয়ার কাজ বন্ধ করে দেয়।

এরপরই ওই এলাকারই এক তৃণমূল কর্মী বিশু অধিকারী যিনি সাহার ঘনিষ্ট বলেই পরিচিত গাঙ্গু ভাইকে মারধর করে বলে অভিযোগ। মারের চোটে গাঙ্গুর মুখে রক্ত জমাট বেঁধে যায়। গাঙ্গুর প্রশ্ন দিদিকে বলার পর যদি তৃণমুলের নেতা কর্মীদের হাতে মার খেতে হয় তবে কে আর দিদিকে বলবে? যদিও  বিশু অধিকারী গোটা ঘটনাকে মিথ্যা অভিযোগ বলে দাবি করেছেন।

Related Articles