আজ বালুরঘাটে প্রচার সভায় আসছেন যোগী আদিত্যনাথ। সভা ঘিরে উন্মাদনা তুঙ্গে।

এ জেন তৃণমূল কংগ্রেস কে হারানোর জন্য একেবারে উঠেপড়ে লেগেছে বিজেপি শিবির। রাজ্যে এসে চলেছেন একের পর এক তাবর তাবর বিজেপি নেতামন্ত্রীরা। কিছুদিন আগে লোকসভা প্রচারের জন্য রাজ্যে এসেছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। গতকাল এসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আর এবার রাজ্যে আসছেন হিন্দুধর্মের পোষ্টার বয় যোগী আদিত্যনাথ। আজ রাজ্যে আসছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ।

রবিবার পশ্চিমবঙ্গের বালুরঘাট রেল ময়দানে উপস্থিত হবেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। জানা গিয়েছে যে, এই বালুরঘাট কেন্দ্রটি এবার বিজেপির অন্যতম প্রধান টার্গেট। সেই জন্য যুদ্ধকালীন পরিস্থিতিতে যোগীজির সভার প্ৰস্তুতি চলছে। রাজ্য সরকার অসহযোগিতা করার সত্ত্বেও কাজে কোনো রকম খামতি আসতে দেয় নি বিজেপি কর্মীরা।

এই বালুরঘাট কেন্দ্রটিকে কোনো ভাবেই হাতছাড়া করতে চান না বিজেপি শিবির। সেই জন্য কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষকরা বারে বারে এখানে এসে এখানকার স্থানীয় বিজেপি কর্মীদের সাথে কথা বলে গিয়েছেন। ইতিমধ্যে বিভিন্ন গোপন প্রস্তুতি নিয়ে চলেছে বিজেপি শিবির। আর এবার এই সকলের মধ্যে সেখানে প্রচার সভা করতে আসছেন যোগী আদিত্যনাথ। এর থেকে বোঝাই যাচ্ছে এবার বালুরঘাটে বিজেপির জয় কেউ আটকাতে পারবে না।

বিজেপির তরফ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে যে সিকিউরিটি ব্যাপারে কোনো রকম সহযোগিতা করছে না রাজ্য সরকার। উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী সাধারণত যেখানেই যান সেখানে তিনি জেড সিকিউরিটি পেয়ে থাকেন। কিন্তু রবিবারে সভা তার আগে শনিবার রাত পর্যন্ত এ ব্যাপারে কোন কথা বলেনি রাজ্য প্রশাসনের পুলিশ আধিকারিকরা। তাই বিজেপি নেতারা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এই ভাবে কোনদিন আটকানো যাবে না বিজেপি কে।
#অগ্নিপুত্র