বড় খবরঃ করোনার আতঙ্কের মাঝেই খুশির খবর! আপনার অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠাবে মোদী সরকার

0
160

করোনার প্রভাবে দেশজুড়ে শুরু হওয়া আর্থিক মন্দা কাটাতে বড়ো সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে ভারত সরকার।দেশের কর্মহীন প্রত্যেক নাগরিককে UBI স্কিমের মাধ্যমে আর্থিক সহযোগিতা করা হবে বলে জানা যাচ্ছে।এরফলে সরাসরি তাদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে এই স্কিমের টাকা ট্রান্সফার করা হবে।যার দ্বারা তারা সেই অর্থ পুনরায় ব্যবসা বা অন্যান্য ক্ষেত্রে নিবেশ করে দেশের অর্থনীতিকে পুনরায় সচল করতে সক্ষম হবে।

করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে জেরবার গোটা বিশ্ব।এর জেরে বিশ্বজুড়ে আর্থিক মন্দা দেখা দিয়েছে।ভারতেও করোনার প্রকোপ বেড়েই চলেছে।ইতিমধ্যেই ১৫০ জনের মতো মানুষ এই ভাইরাসের কবলে পরেছেন।তাই করোনাকে রুখতে অফিস আদালত থেকে শুরু করে স্কুল, কলেজ,বিশ্ববিদ্যালয়,সিনেমা হল,পার্ক,জিম প্রভৃতি বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।প্রয়োজনে বাড়িতে বসেই ডিজিটাল মাধ্যমে এমারজেন্সি কাজ সারার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।ফলে অন্যান্য দেশের মতো ভারতের আর্থিক পরিস্থিতিও সংকটের মুখে।এই অবস্থায় কর্মহীন হয়ে পরেছেন বহু মানুষ।দীর্ঘদিন ধরে গৃহবন্দী থাকার ফলে কারও আবার চাকরিও চলে যেতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ হচ্ছে।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশ যেমন আমেরিকা,হংকং ইতিমধ্যেই দেশের নাগরিকদের আর্থিক মন্দা কাটিয়ে উঠতে তাদেরকে আর্থিক সাহায্য করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।এবার ভারত সরকারও তাদের নাগরিকদের সুরক্ষিত রাখতে এবং কর্মহীন মানুষদের সাহায্য করতে নিয়ে আসতে চলেছে স্কিম।লাইভ মিন্ট এর খবর অনুযায়ী UBI স্কিম চালু হলে ‘প্রধানমন্ত্রী কিষান সম্মান নিধি যোজনার মতো’ করোনার দ্বারা প্রভাবিত নাগরিকদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সরাসরি আর্থিক সাহায্যের অর্থ পাঠিয়ে দেওয়া হবে।

কী এই UBI স্কিম?

UBI বা ‘UNIVERSALE BASIC INCOME’ হলো এমন একটি স্কিম যার মাধ্যমে একটি দেশের নাগরিকদের ন্যুনতম আয় সুনিশ্চিত করা হয়।ধনী,গরিব,চাকরিজীবি,বেকার নির্বিশেষে সকল নাগরিকদের সরকারের তরফে আর্থিক সহায়তা করা হয়।লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর গায় স্টেইন্ডিং সর্বপ্রথম এই স্কিমের কথা বলেন।ইতিমধ্যেই মধ্যপ্রদেশের একটি পঞ্চায়েত এলাকায় ‘পাইলট প্রজেক্ট’ হিসেবে এই স্কিম চালু করা হয়েছিল।এবং এর থেকে আশানুরূপ সফলতাও মিলেছে।এই স্কিমের বিশেষ বৈশিষ্ট্য হলো যে,এই ধরণের আর্থিক সহযোগিতা পাওয়ার জন্য কোনোরকমের কাজ করার বা যোগ্যতার শর্ত চাপিয়ে দেওয়া হয় না।এই স্কিমের মাধ্যমে সমাজের প্রতিটি সদস্যের জীবনযাপনের জন্য ন্যুনতম আয়ের বিধান করা হয়ে থাকে।

বিভিন্ন অর্থশাস্ত্র বিদদের মতে,ভারত সরকার এই মুহুর্তে করোনার প্রভাবে কর্মহীন হয়ে ঘরে বসে থাকা লক্ষ লক্ষ শ্রমিকদের UBI স্কিমের মাধ্যমে আর্থিক সহযোগিতা করতে পারে।UBI একটি রাজ্যের প্রত্যেক প্রাপ্তবয়স্ক নাগরিকদের জন্য বিনাশর্তে আর্থিক সহযোগিতার একটি অন্যতম বিকল্প হতে পারে।

ইতিমধ্যেই আমেরিকা করোনার প্রভাবে আর্থিক মন্দা কাটিয়ে উঠতে তাদের প্রত্যেক নাগরিককে ১০০০ আমেরিকান ডলার (ভারতী মুদ্রায় ৭৪০০০ টাকা) পর্যন্ত আর্থিক সহযোগিতা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।অপরদিকে হংকং সরকারও তাদের নাগরিকদের ১২৮০ আমেরিকান ডলার (ভারতীয় মুদ্রায় ৯৪৭২০ টাকা) আর্থিক সহযোগিতা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।যাতে তারা এই অর্থ ব্যবসায় বা অন্যান্য ক্ষেত্রে নিবেশ করে দেশের অর্থনীতিকে পুনরায় চাঙ্গা করতে পারে।

সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশের যোগী আদিত্য নাথের সরকারও রাজ্যের শ্রমিকদের ভরনপোষনের জন্য আর্থিক সহযোগিতা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।এছাড়াও করোনায় আক্রান্ত রোগীদের সম্পূর্ণ চিকিৎসার ব্যয়ভারও রাজ্যসরকার গ্রহণ করবে।