‘বেদ বিশ্ববিদ্যালয়” শুরু করতে চলেছে VHP, গাছের নীচে হবে পড়াশুনা

মাই ইন্ডিয়া ডেস্কঃ রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘ (RSS) এর সহায়ক সংগঠন বিশ্ব হিন্দু পরিষদ (VHP) নিজেদের প্রথম বিশ্ববিদ্যালয় শুরু করতে যাচ্ছে। অশোক সিঙ্ঘল বেদ বিজ্ঞান এবং প্রযুক্তিবিদ্যা বিশ্ববিদ্যালয়ে আগামী বছর থেকে পড়াশুনা শুরু হয়ে যাবে। এই বিশ্ববিদ্যালয় গুরুগ্রামে তৈরি হচ্ছে। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে যুক্ত মানুষেরা জানান, এই বিশ্ববিদ্যালয়ের মুখ্য উদ্দেশ্য হল বৈদিক পদ্ধতিতে হওয়া পড়াশুনাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। এখানকার বিদ্যার্থীদের মডার্ন আর বৈদিক পাঠ্যক্রম পড়ানো হবে।

বৈদিক যুগের কথা মাথায় রেখে, এখানে কিছু ক্লাস গাছের নীচে করানো হবে। যেমন প্রাচীন কালে হত। এছাড়াও বৈদিক মন্ত্র আর গীতা এর পাঠ সকাল থেকে সন্ধ্যে পর্যন্ত বিভিন্ন মাধ্যমে ক্যাম্পাসে স্টুডেন্টদের শোনানো হবে। সংবাদ সংস্থা ANI অনুযায়ী, ক্যাম্পাসে একটি বৈদিক টাওয়ারও বানানো হবে। অডিও ভিজুয়ালের সাথে আলাদা আলাদা ফ্লোরে বেদ আর তাঁর সাথে জড়িত সাহিত্য মজুদ রাখা হবে। সেখানে সুরভি সদন (গোশালা), মন্দির আর মেডিটেশন হল ছাড়াও যজ্ঞ করার হলও থাকবে।

এই বিশ্ববিদ্যালয় গুরুগ্রামে ৩৯.৬৮ একর জমিতে তৈরি হচ্ছে। এর নির্মাণ অনেক ধাপে করা হবে। এছাড়াও সুত্র থেকে জানা যায় যে, এই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান উদ্দেশ্য হল ভারতকে আবার বিশ্বগুরু বানানো এবং আধুনিক বিজ্ঞান, টেকনোলজির সাথে যুক্ত ব্যাক্তি এবং বৈদিক পণ্ডিতদের একটি কমন প্ল্যাটফর্ম উপলব্ধ করানো, ভারতে জ্ঞানের একটি নতুন আর ব্যাপক ধারা তৈরি করাই হল এই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান উদ্দেশ্য।

‘অশোক সিঙ্ঘল বেদ বিজ্ঞান আর প্রযুক্তিবিদ্যা বিদ্যালয়” এর প্রথম শিক্ষাবর্ষে ২০ টি বিষয় পড়ানো হবে। এর মধ্যে যেই যেই বিষয় গুলো পড়ানো হবে সেগুলো হল, অ্যাগ্রিকালচার, আর্কিটেকচার, এনভায়রনমেন্টাল সাইন্স, যুদ্ধতন্ত্রম, এছাড়াও আরও অন্যান্য বিষয় গুলো পড়ানো হবে। সুত্র অনুযায়ী, এই বিশ্ববদ্যালয় ন্যাশানাল এডুকেশন পলেসি ২০১৯ এর দিশা নির্দেশ পালন করবে।

Related Articles